Home Videos Photos News & media Blogs Contact    
News and Articals

ইবির ভিসি কার্যালয়ে ছাত্রলীগের হামলা

Edit Date:11/12/2013 12:00:00 AM

 
কুষ্টিয়া: কুষ্টিয়ায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) উপাচার্য অধ্যাপক আব্দুল হাকিম সরকারের কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছে চাকরিপ্রত্যাশী ছাত্রলীগ নেতারা। এসময় শাখা কর্মকর্তাদের কার্যালয়েও ভাঙচুর চালানো হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে ইবি শাখা সাবেক ছাত্রলীগের চাকরিপ্রত্যাশী নেতা আশিকুর রহমান ও তৌফিকুর রহমানের নেতৃত্বে কয়েকজন এ হামলা চালায়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে উপাচার্যের কার্যালয়ের একজন কর্মচারী জানান, দুপুর ২টার দিকে ইবি শাখা সাবেক ছাত্রলীগের চাকরি প্রত্যাশী নেতা আশিকুর রহমান ও তৌফিকুর রহমানের নেতৃত্বে চাকরিপ্রত্যাশী ছাত্রলীগের সাবেক কয়েকজন নেতাকর্মী বহিরাগত আরো কিছু লোককে নিয়ে উপাচার্যের কার্যালয়ে ঢোকেন। এ সময় উপাচার্য অধ্যাপক আব্দুল হাকিম সরকার শারিরীকভাবে অসুস্থতার জন্য ক্যাম্পাসের বাইরে ছিলেন।
ওই নেতাকর্মীরা উপাচার্যের কার্যালয়ে এসে কাউকে না পেয়ে উপস্থিত কয়েকজন কর্মচারীকে তারা অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে উপাচার্যের ব্যক্তিগত সহকারী এবং শাখা কর্মকর্তাদের কক্ষের চেয়ার টেবিল ও কাঁচ ভাঙচুর করে চলে যান। পরে প্রক্টর অধ্যাপক জাহাঙ্গীর হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য কার্যালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘আমি অফিসের প্রয়োজনে কক্ষের বাইরে ছিলাম। বাইরে থেকে আসার পর আমার কক্ষ এবং ভিসি স্যারের ব্যক্তিগত সহকারী জিল্লুর রহমানের কক্ষে ভাঙচুরের দৃশ্য দেখতে পাই।’ তবে কে বা কারা এ ভাঙচুর চালিয়েছেন, সে বিষয়ে তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ সাবেক নেতা আশিকুর রহমান তার নিজের সম্পৃক্ততার কথা অস্বীকার করে বলেন, ‘ঈদের ছুটির পর কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগের মৌখিক পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিলো, কিন্তু তা এখনো না হওয়ায় বহিরাগত চাকরিপ্রত্যাশীদের কয়েকজন গিয়ে কাউকে না পেয়ে ভাঙচুর করেছে।’

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক শামীম খান বলেন, ‘ভাঙচুরের ঘটনার সাথে ছাত্রলীগের কোনো নেতাকর্মী জড়িত নয়।’

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে তদন্ত সাপেক্ষে জড়িতদের বিরুদ্ধে  প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

উল্লেখ্য, কর্মকর্তা-কর্মচারী পদে নিয়োগের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিরা দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রলীগের চাকরিপ্রত্যাশী সাবেক কয়েকজন নেতাকর্মীকে আশ্বাস দিয়ে আসছিলেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে আগেও বিভিন্ন অফিসে বেশ কয়েকবার ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

 

Terms & Conditions © Copy right by Awami Brutality 2010